গলুই (Golui) Shakib Khan Bangla Full Movie HDRip Review Download 2022

 


গুলই (Golui) Bangla Full Movie Review Download -1080P | 4K | 720P | 480P-X64 Free  Download

দেখে নিলাম সরকারী অনুদানের সিনেমা গলুই এর টিজার। 
টিজার দেখে কিছু বিষয় খুবই ভালো লেগেছে যা ৯০ দশকে ইলিয়াস কাঞ্চন চম্পা আপাদের সিনেমায় দেখা যেতো। অনেক দিন পর ঢালিউড প্রেমীরা আগের সেই স্বাদ পাবে। 
আবার খাঁটি বাংলা সিনেমায় ইংরেজিতে পয়েন্ট উপস্থাপন করেছেন পরিচালক সাহেব। 

An Ordinary Boy
And A Princess 
And Extraordinary Love Story 

✔️গলায় তাবিজ পরা নায়ক গ্রামের গরীব ঘরের অতি সাধারণ ছেলে
✔️নায়ক নৌকা চালায় 
✔️নৌকা চালাতে চালাতে গান গাই 
✔️নায়ক ঢোল বাজাবে 
✔️নায়িকা দেখে প্রেমে পড়বে
✔️নায়িকা জমিদারের মেয়ে
✔️নায়ক নায়িকা গ্রামের নাটকে রাজা রাণীর সাজ
✔️নৌকায় বসে নায়কের অভিমান রাগ কষ্ট
✔️নায়িকা কষ্টে স্লো-মোশনে দৌড়ানো
✔️নৌকায় গলুই লিখা গাঁদাফুল দিয়ে 

সবমিলিয়ে গ্রামবাংলার প্রেম কাহিনী নিয়ে খুবই ভালো মানের একটি সিনেমা পেতে যাচ্ছি আমরা। ঈদের বাজারে এমনই ছবি দেখতে চাই দর্শকরা। তিন বছর ধরে যে খরা চলছে তা গলুই দিয়ে কাটিয়ে উঠবে বলে মনে করি। 
সুতরাং ঈদ হবে গলুইময় ♥️



টিজার রিভিউঃ গলুই


নির্দেশনাঃ এস এ হক অলীক



বাংলা সিনেমার চরমতম অশ্লীল সময়ে, যখন ভাল সিনেমা বলতে চ্যানেল আইয়ে টিভি প্রিমিয়ার হওয়া কিছু মুভি ছিল, সে সময় এস এ হক অলীক নামক এক নির্মাতা এনেছিলেন ‘হৃদয়ের কথা’। মরুভূমিতে সামান্য জলের ছোঁয়ার মান যেমনই হোক এস এ হক অলীক নামটি সে সময়কার আমার মত যারা ইন্ডাস্ট্রি বিষয়ে খোঁজ খবর রাখতেন তাদের কাছে নতুন আশার বাণী হয়ে আসে।হৃদয়ের কথা’র পরের বছর ২০০৮ সালে যখন তার ‘আকাশ ছোঁয়া ভালবাসা’ মুভিটি মুক্তি পায় আমরা এক কথায় জানতাম এস এ হক অলীকের মুভি আর এস আই টুটুল ও হাবিবের গান; ধুঁকতে থাকা সে সময়কার ঢাকাই ইন্ডাস্ট্রির জন্য আলোকছটা।


.


কিন্তু এরপর কি থেকে কি যে হয়ে গেল। ২০০৮ এর ৭ বছর পর ২০১৫ সালে তিনি বানালেন ‘আরো ভালবাসবো তোমায়। শাকিব খান-পরিমনী জুটির সেই ‘সিনেমার মধ্যে সিনেমা’ মুভিটি বাণিজ্যিকতায় সবরকম সফলতার আভাস দিলেও এই প্রজন্মের কাছে জাস্ট শাকিব খানের একটা ‘উইয়ার্ড কান্নার মিমস’ হিসেবে বেঁচে আছে। যদিও হাবিবের অসাধারণ কন্ঠে এই মুভিরই ‘মনের দুয়ার খুলে দিলাম’ আমার অসম্ভব প্রিয় গান। পরের বছর ২০১৬ সালে তিনি ‘এক পৃথিবী প্রেম’ নামে আরেকটি মুভি বানালেও তা যে কখন এল সিনেমা হলে আর কখন গেল সেই খোঁজ রাখতে পারিনি।


.


সে যাই হোক, শেষ মুভির ৬ বছর পর এবারের ঈদে আবারো নতুন সিনেমা নিয়ে হাজির এস এ হক অলীক। ‘গলুই’ নামের অসম্ভব কাব্যিক ডিজাইনের মুভিটির টিজার এক ঝলকে আমাদের নিয়ে গেছে দাদী-নানীর মুখে শোনা চিরায়ত আবহমান বাংলার সেই নদীতটে। স্টাইল, ভিশন, ডেলিভারি আর পেসিংয়ে ‘মধুমালা/মণিমালা’ জাতীয় ভাইব দিচ্ছে ‘গলুই’। যদি খোরশেদ আলম খসরুর লেখা গল্পটি এই কালের মানে উত্তীর্ণ না হয়; তবে শুধুমাত্র নস্টালজিয়ার জোরে দর্শকের মনে স্থান পাবে না। যদি আসলেই ‘গলুই’এর গল্প এই কালের দর্শকের ভাবনা ও প্রত্যাশার সমান না হয় তবে আমার চেয়ে বেশি দুঃখ সত্যি আর কেউ পাবে না।



আমার শৈশব-কৈশরে বেড়ে ওঠা চাঁদপুরে ‘গলুয়ে’র অধিকাংশ দৃশ্যধারণ করা হয়েছে। নৌকাবাইচ ও চরের দৃশ্যগুলো সত্যিই মনোমুগ্ধকর ছিল। শামসুল আলম লেনিনের ক্যামেরা আসলেই স্নিগ্ধ বাংলার মায়া ও চঞ্চল নদীর কায়া বেশ চমকপ্রদভাবে তুলে ধরেছেন। সঙ্গীতায়োজনে কুমার বিশ্বজিৎ, এস আই টুটুল ও হাবিবের নাম দেখে আশায় বুক বাঁধলাম। দেখা যাক আশাপূরণ হয় কিনা। শঙ্কা শুধু ২টা—গল্পের চেয়ে নায়ক শাকিব খান ওভার পাওয়ার হয়ে যান কিনা? আর সিনেমাটা আমার শহরে না হোক অন্তত আমার জেলায় মুক্তি পায় কিনা?

গুলই (Golui) Bangla Full Movie Review Download -1080P | 4K | 720P | 480P-X64 Free  Download

মুভি নাম :গুলই (Guloi) 

অভিনয় :   শাকিব খান,পুজা চেরি,

কাহিনী :গলুই(golui) ছিনেমাটি জামালপুরের যমুনার চরে গ্রামীণ পরিবেশে শুটিং করা হয়েছে! ছিনেমাটিতে শাকিব খান কে ভিন্ন রূপে দেখা যাবে বলে জানা যাচ্ছে যা দর্শক আগে সাকিব খান অভিনীত কোনো ছিনেমাতে দেখেনি। ছিনেমাটি দেখার জন্য দর্শকদের মাঝে ভিন্ন রকমের আগ্রহ দেখা যাচ্ছে।


গলুই (Golui) ছিনেমার প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন বর্তমান কালের পরিচিত মুখ বাংলাদেশের সুপারস্টার শাকিব খান (Shakib Khan) ও বাংলাদেশে ও কলকাতার জনপ্রিয় ও নতুন মুখ পূজা (Puja Cery).

গলুই ছিনেমাটি পরিচালনা করেছেন এস এ হক অলিক এবং প্রযোজনা করেছেন খোরশেদ আলম খসর।


২০২০-২১ অর্থবছরে সরকারি অনুদান পেয়েছে ‘গলুই’। ঐতিহ্যবাহী নৌকাবাইচ প্রতিযোগিতা ও বিস্তীর্ণ এক জনপদের মানুষের জীবনের গল্পে নির্মিত হচ্ছে সিনেমাটি। এতে ‘মালা’ চরিত্রে অভিনয় করছেন পূজা চেরি। আর শাকিব খান অভিনয় করছেন ‘লালু’ চরিত্রে।

বিশ্বায়ন আর প্রযুক্তির প্রভাবে অনেকটাই বিলুপ্তির পথে আমাদের গ্রাম বাংলার সংস্কৃতি। ফলে নতুন প্রজন্ম নিজেদের সংস্কৃতি ভুলতে বসেছে। আমি মনে করি, শেকড়কে না জানলে সামগ্রিকভাবে জাতির উন্নয়ন অসম্ভব। এ জন্যই বোধ হয় বিজ্ঞজনেরা বলেন, ‘সংস্কৃতি হচ্ছে জীবনের দর্পণ। সংস্কৃতি প্রতিটি ব্যক্তি, জাতি ও দেশের প্রকৃত পরিচয় বহন করে।’


ঈদে মুক্তি পেতে যাওয়া আমার নতুন সিনেমা ‘গলুই’-তে শেকড়ের গল্প তুলে ধরার চেষ্টা করা হয়েছে। ছিল হারিয়ে যেতে বসা লোক ঐতিহ্য আর সংস্কৃতিকে এই সিনেমায় তুলে ধরার আপ্রাণ চেষ্টা। ‘গলুই’ একটি চমৎকার মৌলিক গল্প ও হৃদয় ছুঁয়ে যাওয়ার মতো সিনেমা। পিরিওডিক্যাল রোম্যান্টিক গল্প সহজ সরলভাবে উঠে এসেছে এই সিনেমায়। এতে আছে প্রতিটি বাঙালির শেকড়ের গল্প; আরও আছে নৌকা বাইচের মতো প্রায় বিলীন হতে যাওয়া হারানো ঐতিহ্য। 


সবদিক বিবেচনায় নিজের দায়বদ্ধতা থেকে ‘গলুই’-এ কাজ করেছি। সরকারি অনুদানে এটি আমার অভিনীত প্রথম সিনেমা। সরকারী অনুদানের হলেও এটি পুরোপুরি মূলধারার বাণিজ্যিক সিনেমা। পরিচালক, প্রযোজকসহ সিনেমা সংশ্লিষ্ট সবাই নিজেদের সেরাটা দেয়ার চেষ্টা করেছেন। আশা করছি, সবশ্রেণির দর্শক ‘গলুই’ এর সঙ্গে থাকবেন। 


একজন অভিনেতা হিসেবে চলচ্চিত্র ইন্ডাস্ট্রির প্রয়োজনে সব ধরনের কাজে নিজেকে যুক্ত করতে হয়। আমারও তাই চাওয়া - মৌলিক গল্পের ‘গলুই’ সিনেমা প্রেমীরা সাদরে গ্রহণ করুক।         


‘গলুই’- এর টিজার প্রকাশের পর দেশ-বিদেশের অগণিত মানুষের ইতিবাচক মন্তব্যে আমি অভিভূত। ঈদ উৎসবে পরিবার পরিজন নিয়ে সিনেমা হলে গিয়ে সিনেমা দেখার আনন্দটাই আলাদা। তাই আসছে ঈদে বাবা-মা, ভাই-বোন, বন্ধু, আত্মীয়স্বজন, পরিবার পরিজন সবাইকে সিনেমা হলে গিয়ে ‘গলুই’ দেখার আমন্ত্রণ জানাই। আমার বিশ্বাস, পরিবার পরিজন নিয়ে ঈদে সিনেমাহলে গিয়ে 'গলুই' দেখার পর আপনারাও অভিভূত হবেন। 


দেশের সকলের সুস্থতা কামনা করি। সবাইকে পবিত্র মাহে রমজানের শুভেচ্ছা …

এবার ঈদে আসিতেছে...... 





Close